fbpx

ঈদ, ঈদের ছুটি এবং আমি

ঈদের ছুটি সবসময় আমার কাছে অতি গুরুত্বপুর্ন একটা অধ্যায়, কারন এই ছুটিতে আমি ঝালিয়ে তুলতে পারি আমার পারিবারিক সম্পর্কগুলোকে, প্রফেশনাল ভুল গুলোকে। এই ছুটিতেই একমাত্র মনে হয় ঢাকা একটু সুন্দর শহর তাই ঢাকার রাস্তাতে ঘুরাঘুরির জন্য একটা সিডিউল আগে থেকেই করা থাকে।  প্রতিবারই ঈদ এর লম্বা ছুটিকে পর্যাপ্ত উপায়ে কাজে লাগাতে আমার কিছু পদক্ষেপ থাকে যার পেছনে থাকে দুইটি মুল উদ্যেশ্য, প্রথমত ক্লান্তি গুলোকে দূরে ঠেলে দেয়া, এবং দ্বিতীয়ত আমার বিগত দিনগুলোর ভুল গুলোকেও শুধরে নেয়া

# ১

সারাদিনের কর্ম ব্যাস্ততার কারনে অনেক সময় প্রিয়মানুষগুলোকে পর্যাপ্ত সময় দেয়া হয়ে উঠে না, তাই আমার প্রথম লক্ষ থাকে এই প্রিয় মানুষগুলোকে বেশি বেশি সময় দেয়া যাতে এই স্মৃতি গুলো আমাকে আবার কর্ম ব্যাস্ত হতে সাহায্য করে। প্রিয় মানুষগুলোর সহযোগিতা ছাড়া কখনই সফল হওয়া সম্ভব নয়।

# ২

প্রেফেশনাল এবং পার্সোনাল দুটি যায়গাতেই অসংখ্য শুন্যস্থান রয়েছে, রয়েছে অনেক ভুল, রয়েছে আরো ভাল করার সুযোগ। যেহেতু ঈদ এর ছুটিতে আমার কোন রুটিন ওয়ার্ক করতে হয় না, তাই আমার হাতে পর্যাপ্ত সময় রয়েছে ফ্লাস ব্যাক এ যাওয়ার। ঘুরতে ঘুরতে অথবা আড্ডা দিতে দিতেই অনেক পয়েন্ট মাথার মধ্যে চলে আসে যেখানে কাজ করা উচিত। যেখানে কাজ করতে পারলে আরো ভাল ফলাফল পাওয়া যাবে। তাই ঈদ এর ছুটিতে আমি ডিরেক্ট কোন কাজ না করলেও আমি প্রফেশন নিয়ে একটু আধটু ভাবি, এবং এই ভাবনাই আমাকে গুরুত্বপুর্ন অনেক গুলা পয়েন্ট বের করে দেয় যা ছুটির পর কাজে লাগাতে পারলে ভাল ফলাফল পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এবং এ পর্যন্ত ফলাফল সবসময় পসেটিভ ছিল, আশা করছি এবারো তার ব্যাতিক্রম হবে না।

# ৩

আমার বেশির ভাগ আত্মীয়স্বজন কাছা কাছি থাকে, তাই চাইলেও দূরের আত্মীয়স্বজন এর বাসা থেকে ঘুরে আসা হয় না, কিন্তু আপনার এই সুযোগটি কাজে লাগান। কারন ঈদ এর পরেই আবার ট্রাফিক জ্যাম শুরু হবে। (বিশেষ করে ঢাকাতে যারা রয়েছেন তাদের জন্য)

# ৪

পুর্বের সব ঈদ এ আমার কোন নির্দিষ্ট রুটিন থাকতো না, তৎক্ষণাৎ সিদ্ধান্ত নিয়ে বের হয়ে পরতাম, তবে এবার একটা রুটিন তৈরি করছি। আমার বিশ্বাস রুটিন তৈরি করাটা এই ঈদ এর সবচাইতে ভাল সিদ্ধান্ত। কতটুকে কাজে লেগেছে তা ঈদ এর পরেই বলতে পারবো।

# ৫

এটা আমার ছেলের প্রথম ঈদ, তাই এই ঈদটি বাবা হিসেবে আমার কাছে একটু বেশি আনন্দের। এই ঈদ এ আমরা বাপ বেটা অনেকগুলা সেলফি তুলবো তার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। ছেলের মা আমাদের সাথে যোগ দিতে চাচ্ছে, কিন্তু আমরা বাপ বেটা এখনো তাকে গ্রিন সিগনাল দেই নি, দেখা যাক শেষ পর্যন্ত গ্রিন সিগনাল পায় কিনা?

এতো ছিল আমার ঈদ ভাবনা, আপনার ঈদ ভাবনা জানার অপেক্ষাতে রইলাম। সবাই ভাল থাকবেন। ঈদ মোবারক।