fbpx

কন্টেন্ট কে প্রানবন্ত করার উপায় সমুহ

আপনি যখন ডায়েরি লিখছেন তখন আপনি যেমন খুশি তেমন লিখতে পারলেও, প্রফেশনাল কন্টেন্ট তৈরি করার ক্ষেত্রে ব্যাপারটা ভিন্ন। আপনাকে তাই লিখতে হবে যা আপনার পাঠকেরা চায়। আপনাকে সেভাবেই লিখতে হবে যেভাবে আপনার পাঠকরা পছন্দ করেন। উদাহরণ স্বরূপ বলতে পারি, আমি যখন বাংলা কন্টেন্ট লিখি তখন চেষ্টা করি লেখাটি কিছুটা ছোট রাখতে, আবার যখন ইংরেজী পোষ্ট লিখি তখন চেষ্টা করি বড় রাখতে। পুরা ব্যাপারটাই আসলে আমার পাঠকদের চাওয়ার উপর নির্ভর করে থাকে। তাই আপনার কন্টেন্ট কে প্রানবন্ত রাখতে হলে আপনাকে কিছু কৌশল প্রয়োগ করতে হতে পারে। সেই কৌশল গুলো নিয়েই এখন লিখছি।

নিজেকে সম্পৃক্ত করুন

পরিশ্রম করলে সফল হওয়া যায়, এই কথার চেয়ে আমি কিভাবে সফল হয়েছি এই বিষয় নিয়ে লিখলে পাঠকরা বেশি অনুপ্রাণিত হবে। তাই লিখাকে প্রানবন্ত করার একটা কার্যকরি কৌশল হচ্ছে নিজেকে সম্পৃক্ত করা, নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করা। নিজে কি করেছি, আর কি করছিনা এবং তা থেকে প্রদত্ত ফলাফল সঠিকভাবে তুলে ধরতে পারলে মানুষ সেই কন্টেন্ট পড়তে বেশি সাচ্ছন্দ বোধ করে থাকে।  আমার পথচলা নিয়ে একটি প্রেসেন্টেশন, যারা ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করছেন তাদের জন্য কাজে লাগতে পারে।

 

কমিক অথবা কার্টুন ইমেজ ব্যাবহার করুন

আমাদের সবার জীবনই কম বেশি অনেক স্ট্রেস রয়েছে। আবার বড় হয়ে গেলে ছোট বেলার বেপার গুলা মনে নাড়া দেয়। হয়ত সেই কারনেই আমাদের সবার কম বেশি কার্টুনের উপর দুর্বলতা এখনো রয়েছে। আর তাই হয়ত কার্টুন দিয়ে তৈরি করা ট্রোল গুলা আমরা সোস্যাল মিডিয়াতে একটু বেশি শেয়ার করি। একই ট্রিক আপনি প্রফেশনাল কন্টেন্টেও ব্যাবহার করতে পারবেন। একটু খেয়াল করে দেখুন, দিনে দিনে এনিমেশন মুভি, এনিমেশন কমার্শিয়াল এবং এনিমেশন ইমেজ এর ব্যাবহার বাড়ছে। তাই আপনার লেখার মধ্যেও আপনি কার্টুন ইমেজ ব্যাবহার করতে পারেন, যা নিঃসন্দেহে আপনার লেখাকে প্রানবন্ত করবে।

ভিডিও অথবা স্লাইডশেয়ার প্রেসেন্টেশন এমব্যাড (embed) করুন

ভিডিও কন্টেন্টের চাহিদা প্রতিনিয়ত বাড়ছে। তাই সম্ভব হলে আপনার লেখাতে কিছু ভিডিও অথবা প্রেসেন্টেশন এমব্যাড করতে পারেন। ভিডিও বলতেই কিন্তু শুধু ইউটিউব ভিডিও না। আপনি চাইলে ফেসবুকের লাইভ ভিডিও অথবা ফেসবুকের যেকোন ভিডিও এমব্যাড করতে পারবেন। একই ভাবে স্লাইডশেয়ার অথবা অন্য কোন সাইটের প্রেসেন্টেশন এমব্যাড করতে পারবেন।

টুইটার অথবা ফেসবুক স্টোরি এমব্যাড করুন

আপনার লেখার মধ্যে যদি কারো উক্তি অথবা তার রিসেন্ট আপডেট দেয়ার প্রয়োজন হয় তাহলে সবচেয়ে ভাল উপায় হচ্ছে তার সেই পোস্টটি এমব্যাড করে দেয়া। এটা করলে আপনার পোস্টটিকে আরো বেশি প্রফেশনাল দেখাবে। আপনি সার্চ ইঞ্জিন জার্নাল অথমা সিমিলার ওয়েবসাইট গুলো দেখলে দেখতে পাবেন তারা সবসময় এটি করে থাকে।

ইনফোগ্রাফিক

বর্তমান সময়ের খুব বেশী কার্যকরি একটা মাধ্যম হচ্ছে ইনফোগ্রাফ ব্যাবহার করা। মানুষ যেমন অনেক সময় নিয়ে তার দরকারি তথ্য পড়ে থাকে তেমনি কখনো কখনো মানুষ খুব অল্প সময়ে তার দরকারি মেসেজটা পেতে চায়, আর এই মেসেজ দেয়ার জন্য ইনফোগ্রাফ এর চেয়ে ভাল উপায় খুজে পাওয়া দুস্কর।

এছাড়াও যারা আমাজন নিশ সাইটি নিয়ে কাজ করেন তারা প্রায়ই ইনফোগ্রাফিক তৈরি করে থাকে। কেননা ইনফোগ্রাফিক দিয়ে লিঙ্ক আউটরিচিং এখনো পর্যন্ত খুবই কার্যকরি একটা ট্রিক। এটাকে মুলত গেস্টোগ্রাফিক বলে থাকে।

নিশ (niche) লিডার দের উক্তি ব্যাবহার করুন

“সফল হতে হলে প্রথমেই নিজেকে বিশ্বাস করতে হবে যে আমি পারব।“

মানুষের লাইফস্টাইলটাও কখনো কখনো যন্ত্রের মত। চার্জ শেষ হয়ে যায়। তখনই আমাদের এমন কিছু দরকার হয় যা থেকে চার্জ ফেরন পাওয়া যায়। নিচ লিডারদের উক্তি গুলা অনেকটা চার্জারের মত কাজ করে। তাই কন্টেন্টের মধ্যে কিছু উক্তি ব্যাবহার করা গেলে তা পড়তে ভাল লাগে।

উপরের উক্তিটা নিকস কাজান্টজাকিস এর। হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে আনার জন্য এই ধরনের উক্তি ব্যাবহার করা যায়। আত্মবিশ্বাস বাড়াতে আমার লিখা এই আর্টিকেলটাও পড়ে দেখতে পারেন।

আমি আমার ব্লগ কন্টেন্টে এবং সোস্যাল পেইজগুলাতে সবসময় এ ধরনের উক্তি পোষ্ট করে থাকি। এরকম ১০০ টি উক্তি সম্বলিত কাস্টমাইজড কপি রাইট ফ্রী ছবি আমি আপনাকে দিতে পারি। এই ছবি গুলা আমাদের নিজেদের বানানো এবং আমরা আমাদের পেইজ গুলাতে এই ছবি গুলা পোষ্ট করতাম। আপনিও আপনার সোস্যাল পেইজগুলাতে এই ছবি ব্যাবহার করতে পারেন। প্রতিদিন ১ টা করে পোষ্ট করলে প্রায় তিন মাসের অধিক সময় ধরে এই ছবি গুলা পোষ্ট করতে পারবেন।

ছবি গুলা পেতে নিচের ফর্ম ফিলাপ করুন।