fbpx

হর্ন ইফেক্ট কি এবং কিভাবে এটি আমাদের প্রতিদিনের জীবন যাপনকে প্রভাবিত করে

Share on facebook
Share on pinterest
Share on twitter
Share on linkedin

মানুষ মাত্রই জাজমেন্টাল। এটা পৃথিবীর সব দেশেই বিদ্যমান। যেমন আমাদের অনেকের ধারনা, আফ্রিকার মানুষ গুলো হয়তো অনেক খারাপ হয়। কালো বাচ্চারা দুষ্টামি করলে মেজাজ খারাপ লাগে। ফর্শা বাচ্চারা করলে মনে হয় কত কিউট। এমনকি ধর্ম ভিত্তিক এরকম ধারনাও পোষণ করে কম বেশী সবাই। কোন নির্দিষ্ট ধর্ম, গোত্র, লোকেশনের মানুষদের প্রতি হয়তো নেগেটিভ ধারনা থাকে।

বেপারটা আসলে এমন কেন?

এটা বুঝতে হলে আমাদের হেলো ইফেক্ট এবং হর্ন ইফেক্ট বুঝতে হবে। আমরা আসলে আমাদের পুর্ব অভিজ্ঞতা থেকে সব কিছু ডিফাইন করতে চাই।

উদাহরণঃ

ধরেন আমি দেখেছি আমার কোন এক বন্ধু, যে পড়াশুনাতে অমনোযোগী ছিল, এবং পরিবর্তিতে সে হয়তো নষ্ট হয়ে গিয়েছে, বখাটে হয়ে গিয়েছে। এই অভিজ্ঞতা আমার সাবকন্সাস মাইনড এ স্টোর হয়ে যাবে। শুধু তাই না, এই অভিজ্ঞতা আমাকে পরবর্তিতে এই রেফারেন্সকে কেন্দ্র করে জাজ করতে উৎসাহিত করবে। আমি যখনি দেখবো কেউ পড়ালেখাতে অমনোযোগী, আমি জাজমেন্ট করে ফেলবো, ও বখাটে হতে যাচ্ছে। এবং এটাকে জাজ করেই আমি পরবর্তি এপ্রোচ নিব।

এটি কিন্তু জব ইন্টার্ভিউ নেয়ার সময় প্রচুর হয়ে থাকে। যেমন ধরেন, আমাদের পুর্ব অভিজ্ঞতা বলছে ইন্টার্ভিউ দিতে আসলে ফর্মাল ড্রেস পরে আসা উচিত। এখন কোন একজন যদি টিশার্ট পরে ঢোকে, তাহলে সাথে সাথেই আমার সাবস্কন্সাস মাইন্ড তার টিশার্ট এর উপর বেসড করে জাজ করে ফেলবে। মনে হবে সে স্কীল্ড না, প্রফেশনাল না। তাকে হায়ার করা উচিত না। এটিই হর্ন ইফেক্ট।

আমার সাবকন্সাস মাইন্ড তার টিশার্ট এর উপর বেসড করে আমাকে বাকি সিন্ধান্ত গুলো নিতে উৎসাহিত করছে। কিন্তু আমি যদি নিউট্রাল থেকে তার সাথে কথা বলি, হয়তো আমার ধারনাই পাল্টে যাবে, হয়তো উনিই সেরা ক্যান্ডিডেট ছিলেন।

এই হর্ন ইফেক্ট এর উপর অনেক কেস স্টাডি আছে। একটি শেয়ার করছি।

একটি আর্ট এক্সিবিশন গ্যালারি। খুবই জনপ্রিয় একজন আর্টিস্ট। এবং আর্টিস্ট হিসেবে উনার নাম ম্যানশন করা হয়েছে এক্সিবিশন এ। এবং উনি নিজে উপস্থিত ছিলেন, এবং সবার সাথে খুব কনফিডেন্ট এর সাথে কথা বলছিলেন। সবাই উনার কাজের প্রচুর প্রশংসা করলেন। এবং সিক্রেট সার্ভেতে উনাকে ৮.৯ স্কোর দিয়েছেন ১০ এর মধ্যে।

একই সব কিছু, নতুন এক গ্রুপের মানুষকে আমন্ত্রণ জানানো হল। এবার পরিচিত একজন আর্টিস্ট এর নাম সরিয়ে একজন অপরিচিত আর্টিস্ট এর নাম দেয়া হল। এবং আর্টিস্ট ছদ্যবেশে গেস্ট দের সাথে কথা বললেন। তবে এবার তার গেটাপ একটু অদুভৎ এবং কথার ধরনটাও কিছুটা এলোমেলো। একি ছবি, কিন্তু এবার ফিডব্যাক আসলো ৫, ১০ এর মধ্যে।

এখানে আসলে কী ঘটেছে?

আর্টিস্ট এর পোশাক, কথার ধরন, এবং উনি নিজে অপরিচিত হওয়ার কারনে শুরুতেই মানুষ এক ধরনের জাজমেন্ট করে ফেলেছে। এবং তার উপর বেসড করে মার্কিং দিয়েছে। অন্যথায়, একই চিত্রকর্ম, এত পার্থক্য হওয়ার কথা না।

এরকম আরো মজার অনেক কেস স্টাডি আছে। অথবা আপনি নিজের অভিজ্ঞতা গুলো থেকে যদি ভাবেন, দেখবেন আপনি নিজেও এভাবে অনেককে জাজ করেছেন এবং অনেকের দ্বারা জাজ হয়েছেন।

হ্যালো ইফেক্ট নিয়ে আমরা একটি ভিডিও আছে দেখে নিতে পারেন। হ্যালো ইফেক্ট কী, এবং কিভাবে কাজ করে। ভিডিওটিতে আপনি কিভাবে আপনার মার্কেটিংএ এই হ্যালো ইফেক্ট ব্যাবহার করবেন সেই সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে।

 

আমার ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করতে এখানে ক্লিক করুন

Comments

comments

Share on facebook
Share on pinterest
Share on twitter
Share on linkedin